রাজনীতি 

ভেস্তে গেলো বিএনপির বিশৃঙ্খলার পরিকল্পনা, ১২ তারিখের অপেক্ষা!

ভেস্তে গেলো বিএনপির বিশৃঙ্খলার পরিকল্পনা, ১২ তারিখের অপেক্ষা!

নিউজ ডেস্ক: স্বাস্থ্যগত রিপোর্ট হাতে না পাওয়ায় দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন শুনানির জন্য পরবর্তী দিন ১২ ডিসেম্বর ধার্য করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) উচ্চ আদালত বেগম জিয়ার জামিন শুনানির এই দিন ধার্য করেছেন।

এদিকে জামিন শুনানির দিন পরিবর্তন করা এবং আদালত চত্বরসহ রাজধানী-জুড়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক অবস্থান গ্রহণ করায় বেগম জিয়ার মুক্তির নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার সাহস পায়নি বিএনপি। রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপিপন্থী আইনজীবী ও আইনজীবীদের ছদ্মবেশ ছাত্রদল-যুবদলের কর্মীরা আদালত চত্বর ও আশপাশে অবস্থান নিলেও দলীয় হাইকমান্ডের সঠিক নির্দেশনা না পাওয়ায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেনি বিএনপির নেতৃবৃন্দ। একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রের বরাতে বিএনপির নাশকতা, পরিকল্পনার পরিবর্তন এবং সাংগঠনিক দুর্বলতায় আন্দোলন বিমুখতার বিষয়টিও জানা গেছে।

একটি গোপন সূত্রের বরাতে জানা গেছে, বেগম জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার আদালতে বিএনপিপন্থী সকল পর্যায়ের আইনজীবীদের আদালত প্রাঙ্গণে অবস্থান করার নির্দেশনা দিয়েছিল বিএনপির হাইকমান্ড। রায় বিপক্ষে গেলে মুহূর্তেই আদালত চত্বর ও আশপাশে ব্যাপক নাশকতা, বিশৃঙ্খলা, সরকারপন্থী আইনজীবী এবং বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা করে সরকারকে বিএনপির কঠিন রূপ দেখানোর পরিকল্পনা ছিল দলটির হাইকমান্ডের। কিন্তু রায়কে কেন্দ্র করে যেকোনো ধরণের বিশৃঙ্খলা রুখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর অবস্থান, গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় নজরদারি বৃদ্ধি, সরকারের বিশৃঙ্খলাবিরোধী শক্তিশালী প্রস্তুতি দেখে শেষ পর্যন্ত পিছু হটতে বাধ্য হয়েছে বিএনপি। তবে আগামী ১২ ডিসেম্বর যদি রায় বেগম জিয়ার বিপক্ষে যায় তবে সর্বশেষ শক্তি প্রয়োগ করে সরকারকে নিজেদের দাবির বিষয়ে জানান দিতে চায় বিএনপি।

এদিকে পল্টন-ভিত্তিক বিএনপির একটি সূত্র বলছে, মূলত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শক্ত অবস্থান, জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থন না পাওয়ার আশঙ্কা থেকে দলের হাইকমান্ড শেষ সময়ে বিশৃঙ্খলা থেকে সরে আসতে বাধ্য হয়েছে। তবে আগামী ১২ তারিখ আদালত প্রাঙ্গণ ও এর আশপাশে ভোর থেকেই অবস্থান নেবে বিএনপির নেতা-কর্মীরা। সেদিন রায় নিজেদের পক্ষে গেলে আনন্দ মিছিল করা হবে এবং রায় বিপক্ষে গেলে চরম বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চায় দল। দাবি আদায়ে রাজপথে প্রতিরোধ গড়ে তোলাকে শেষ অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতে চায় বিএনপির হাইকমান্ড।

এদিকে আগামী ১২ ডিসেম্বর বেগম জিয়ার দুর্নীতি মামলায় জামিনের রায়কে ঘিরে বিএনপির সম্ভাব্য নাশকতার বিপক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অবস্থানের বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, বেগম জিয়ার রায়কে ঘিরে উচ্চ আদালত প্রাঙ্গণে বিএনপির নাশকতার তথ্য আমরা পেয়েছি। বিজ্ঞ আদালতের রায়কে ঘিরে বিএনপি-জামায়াতের যেকোনো ধরণের নাশকতা রুখে দিতে সকল প্রস্তুতি নিয়েছি আমরা। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী কোনো দল বা ব্যক্তিকে ছাড় দেবো না আমরা।

Related posts

Leave a Comment

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com