রাজনীতি 

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার সুফল পাচ্ছে বাংলাদেশ

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার সুফল পাচ্ছে বাংলাদেশ

গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশের আকাশে রাজনৈতিক অস্থিরতার মেঘ জমলেও তা বাস্তবে রূপ নেয়নি। জাতীয় নির্বাচনের পর থেকে দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বিরাজমান রয়েছে। নির্বাচনে বিপুল জনরায় নিয়ে টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় এসে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে জোর প্রচেষ্টা শুরু করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার।

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা থাকায় দেশের অর্থনীতিতে সুবাতাস বইতে শুরু করে। জিডিপি প্রবৃদ্ধি, রেমিটেন্স প্রবাহ থেকে শুরু করে অর্থনীতির সকল খাতেই বড় রকম প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

চলতি অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে দেশের পণ্য রফতানিতে বড় প্রবৃদ্ধি হয়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে (জুলাই-মার্চ) ৩ হাজার ৯০ কোটি ৩০ লাখ ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছে। এই আয় গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১২ দশমিক ৫৭ শতাংশ বেশি। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৭.২০ শতাংশ বেশি। তৈরি পোশাক রফতানিতে ভালো প্রবৃদ্ধি হওয়ার কারণে সামগ্রিক পণ্য রফতানিতে ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

চলতি অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে পোশাক রফতানি থেকে আয় এসেছে আড়াই হাজার কোটি ডলারের বেশি। এই আয় গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১৩ দশমিক ৬৫ শতাংশ এবং লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৭ দশমিক ৪০ শতাংশ বেশি। একক মাস হিসেবে গত মার্চ মাসে ৩৩৪ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছে। যা গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ৯.৩৫ শতাংশ বেশি।

শুধু প্রবৃদ্ধি নয় রেমিটেন্স প্রবাহেও উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। বেড়েই চলেছে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স প্রবাহ। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে ১ হাজার ১৮৬ কোটি ৮২ লাখ ডলারের রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। এই নয় মাসে প্রবাসীরা গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১০ দশমিক ৩ শতাংশ বেশি রেমিটেন্স দেশে পাঠিয়েছেন। সর্বশেষ মার্চ মাসে ১৪৫ কোটি ৮০ লাখ ডলারের রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। গত বছরের মার্চে পাঠিয়েছিলেন ১৩১ কোটি ৭৭ লাখ ডলার। এ হিসাবে মার্চ মাসে গত বছরের মার্চের চেয়ে রেমিটেন্স বেড়েছে ১২ দশমিক ১৭ শতাংশ।

টাকার বিপরীতে ডলারের তেজিভাব এবং হুন্ডি ঠেকাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নানা পদক্ষেপের কারণে গত অর্থবছরের মতো চলতি অর্থবছরেও রেমিটেন্সে ইতিবাচক ধারা অব্যাহত রয়েছে বলে মনে করছেন অর্থনীতির গবেষক ও ব্যাংকাররা। প্রবাসীদের বৈধ পথে রেমিটেন্স পাঠাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময়ে নানা পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। তারই ফল পাওয়া যাচ্ছে এখন।

বাংলাদেশের অর্থনীতি গত দুই দশক ধরে ধারাবাহিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। মানব উন্নয়ন সূচক এবং নারী-পুরুষ সমতা অর্জনে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের তুলনায় এদেশ এগিয়ে গেছে। আর এসব সম্ভব হওয়ার ক্ষেত্রে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা কার্যকরী ভূমিকা পালন করেছে।

Related posts

Leave a Comment

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com